You are currently viewing অ্যাডমিন সাপোর্ট কি এবং এই ক্যাটাগরিতে কিভাবে ফ্রীলান্স ক্যারিয়ার শুরু করবেন

অ্যাডমিন সাপোর্ট কি?

অ্যাডমিন সাপোর্ট কথাটি আসলে অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সাপোর্ট এর সংক্ষিপ্ত রূপ। ভার্চুয়াল জগতে অফিস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন সেক্টরের অনেক কাজই বর্তমানে রিমোটলি করা হয়ে থাকে। যেমন-

  1. ডাটা এন্ট্রি করা
  2. লিড জেনারেশন করা 
  3. প্রপারলি ইমেইল হ্যান্ডেলিং করা 
  4. বিজনেস ইমেইল কালেকশন করা
  5. ক্লায়েন্টের সাথে কথা বলে মিটিং ফিক্স করা
  6. গুরুত্বপূর্ণ কাজের ভার্চুয়াল রেকর্ড রাখা
  7. ক্লায়েন্ট এর জন্য ওয়েব রিসার্চ করা
  8. অফিসিয়াল ডকুমেন্ট তৈরি করা 
  9. প্রয়োজনীয় রিপোর্ট তৈরী করা 
  10. ফোনে কাস্টমার এর সাথে কথা বলা
  11. ফোন কলে ক্লাইন্টকে সাপোর্ট দেয়া

এর বাইরেও এমন আরোও অনেক কাজ আছে যা অ্যাডমিন সাপোর্ট ক্যাটাগরিতে পরে।

এই ক্যাটাগরি আপনি কেন বেছে নিবেন-

অ্যাডমিন সাপোর্ট ক্যাটাগরিতে কাজ শেখা অন্যান্য ক্যাটাগরির তুলনায় অনেক সহজ। আপনার যদি কম্পিউটার ও ইন্টারনেট সম্পর্কে বেসিক জ্ঞান থাকে তাহলে অ্যাডমিন সাপোর্ট ক্যাটাগরিতে একটু সময় ব্যয় করলেই আপনার পক্ষে ফ্রীল্যান্স ক্যারিয়ার শুরু করা সম্ভব। সেক্ষেত্রে প্রতিদিন নির্দিষ্ট একটি সময় ধরে ধারাবাহিকভাবে আপনাকে প্রতিদিন প্র্যাক্টিজ করতে হবে।

আপনি কিভাবে শুরু করবেন?

অনলাইনে ক্যারিয়ার শুরু করতে চাইলে আপনার ইন্টারনেট ব্যবহার সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। রেগুলার ইন্টারনেট রিসার্চ বা ইন্টারনেট থেকে যেকোনো তথ্য খুঁজে বের করার কৌশলটা এখানে বেশ কার্যকর ভূমিকা পালন করে। আবার ইন্টারনেট থেকে প্রাপ্ত সকল তথ্যাবলী প্রফেশনালি অর্গানাইজ করাও একটা ভালো স্কিল। এই বিষয়গুলো আপনার আয়ত্বে নিয়ে আসতে সর্বোচ্চ ১-২ মাস লাগতে পারে।

প্রয়োজনীয় ইকুইপমেন্ট লিস্ট

আপনার যদি একটি ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার থাকে এবং তার সাথে নিরবিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট থাকলে আপনি অ্যাডমিন সাপোর্ট ক্যাটাগরিতে কাজ শেখা শুরু করতে পারেন।

আপওয়ার্ক ফ্রীলান্সিং সম্পর্কে ধারণা

আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেস এর আপডেট অনুযায়ী আপওয়ার্ক এ অ্যাডমিন সাপোর্ট নামে একটি আলাদা ক্যাটাগরি আছে। যেখানে- ওয়েব রিসার্চ, ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট, প্রোডাক্ট লিস্টিং ও প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট এর মতো বেশ কিছু সাব ক্যাটাগরি আছে। আপনি যেকোনো সাব-ক্যাটাগরি অনুযায়ী নিজের স্কিল ডেভেলপ করতে পারলে আপনি ফ্রিল্যান্স ক্যারিয়ার শুরু করতে পারবেন।

ফ্রীলান্সিং এ কমুনিকেশন স্কিল কতটা জরুরী

মার্কেটপ্লেস আসলে এমন একটা জায়গা যেখানে আপনার স্কিল ব্যবহার করে আর্নিং করতে হয়। কিন্তু আর্নিং পাথওয়ের মূল ধারায় আসতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে কমুনিকেশনে দক্ষ হতে হবে। কারণ যদি  আপনি ক্লায়েন্ট এর রিকোয়ারমেন্ট বুঝতে না পারেন তাহলে আপনি আপনার ক্লায়েন্টকে সঠিকভাবে  কাজ ডেলিভারী করতে পারবেন না। আর সঠিক কাজ ডেলিভারি করতে না পারলে আপনার ক্লায়েন্ট আপনার উপর অসন্তুষ্ট হবেন এবং আপনাকে খারাপ ফিডব্যাক দিবে। ফলে আপনার প্রোফাইল এর উপর বাজে প্রভাব পরবে।  

অ্যাডমিন সাপোর্ট এর ভবিষ্যৎ

আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেসে এই ক্যাটাগরিতে জব এর চাহিদা বেশ মোটামুটি ভালোই। কারেন্ট মার্কেটপ্লেসে প্রায় ৪০০০ হাজার এর উপর জব আছে এবং গড়ে প্রায় প্রতিদিন ৪০০-৫০০ জব পোস্টিং হয়ে থাকে। সবচেয়ে বড় কথা হলো অ্যাডমিন সাপোর্ট ক্যাটাগরিতে লংটার্ম জব পাওয়া যায়। তাই আপনি যদি এই সেক্টরে নিজের স্কিল ডেভেলপমেন্ট করতে পারেন তাহলে আগামী ১০-১২ বছর এর জন্য একটি সাসটেইনেবল ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

উপসংহার:

মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট ওপেনিং করা থেকে শুরু করে ফ্রিল্যান্স ক্যারিয়ার গড়ার সঠিক গাইডলাইন পেতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন। 

গাইডলাইন লিংক

Leave a Reply