You are currently viewing ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট বলতে কি বোঝায়?

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট বলতে কি বোঝায়?

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হলেন এমন একজন স্বাধীন ব্যাক্তি যিনি ক্লায়েন্টের কাজ অফিসের বাইরে থেকে সম্পন্ন করতে পারেন। সাধারণত ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টগণ বাসা থেকেই অনলাইনের মাধ্যমে অফিসের কাজ করে থাকনে, সেক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নথিপত্রের সকল অ্যাক্সেস আপনি দূর থেকেই মেইনটেইন করতে পারবেন। 

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসাবে নিযুক্ত ব্যক্তিদের প্রায়শই প্রশাসনিক সহকারী বা অফিস ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতে হয় যেখানে তাদের পূর্বের কাজের অভিজ্ঞতাকে প্রাধান্য দিয়ে  থাকে। তবে সোশ্যাল মিডিয়া, কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট, ব্লগ পোস্ট লেখা, গ্রাফিক ডিজাইন এবং ইন্টারনেট মার্কেটিং-এ দক্ষ ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টদের জন্য নতুন সুযোগ উন্মুক্ত হচ্ছে।

সম্ভাব্য কাজের ধরণ

  1. একজন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হলেন একজন স্ব-নিযুক্ত কর্মী যিনি দূরবর্তী অবস্থান থেকে বা হোম অফিস থেকে তার ক্লায়েন্টদের প্রশাসনিক সাপোর্ট প্রদান করে থাকেন। 
  2. সাধারণত যে কাজগুলি প্রায়শই করতে হয় তার মধ্যে রয়েছে অ্যাপয়েন্টমেন্ট নির্ধারণ, ফোন কল করা, ভ্রমণের ব্যবস্থা করা এবং ইমেল অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করা ইত্যাদি।
  3. কিছু ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট গ্রাফিক ডিজাইন, ব্লগ লেখা, বুককিপিং, সোশ্যাল মিডিয়া এবং মার্কেটিং এ সাপোর্ট প্রদানে বিশেষজ্ঞ।
  4. একজন বায়ারের জন্য ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট নিয়োগের একটি সুবিধা হল তাদের যখন যে কাজ প্রয়োজন সেই কাজের জন্য হায়ার করে থাকে।

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট এর যোগ্যতা

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হওয়ার জন্য তেমন কোন কঠিন শিক্ষাগত প্রয়োজনীয়তা না থাকলেও, অনেক ক্লায়েন্টই এমন  ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট চান যাদের কিছু বিষয়ে উচ্চ শিক্ষা বা বিশেষ প্রশিক্ষণ রয়েছে। এবিষয়ে অনেক অনলাইন কোম্পানি ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট দক্ষতার জন্য বিভিন্ন  কোর্স বা  সার্টিফিকেশন অফার করে।

একজন ভার্চুয়াল এসিস্টেন্টকে অবশ্যই টেক-স্যাভি হতে হবে, কম্পিউটারর ভালো দক্ষতা থাকতে হবে এবং সাধারণত ব্যবহৃত সফ্টওয়্যার এবং ব্যবসায়িক প্রোগ্রামগুলির সাথে উচ্চ স্তরের দক্ষতা থাকতে হবে। ধরুন যিনি হিসাবরক্ষণে পারদর্শী তিনি অ্যাকাউন্টিং এর বিভিন্ন বিষয় যেমন- বুক কিপিং, এন্ট্রি চেকিং ইত্যাদি নিয়ে কাজ করতে পারেন।  

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট ক্যাটেগরিতে কি কি ধরনের কাজ পাওয়া যায়?

প্রধানত ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টদের ৮টি ক্যাটাগরিতে হায়ার করে থাকেন। যেগুলো হলো-

  1. সোশ্যাল মিডিয়া ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট
  2. রিয়েল এস্টেট ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট
  3. ওয়েব রিসার্চ অ্যাসিস্ট্যান্ট
  4. অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অ্যাসিস্ট্যান্ট 
  5. ই-কমার্স ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট
  6. ডাটা এন্ট্রি অ্যাসিস্ট্যান্ট 
  7. বুক কিপিং অ্যাসিস্ট্যান্ট 
  8. মার্কেটিং অ্যাসিস্ট্যান্ট 

এর বাইরেও আরো অনেক ক্যাটাগরি আছে তবে এর মধ্যে যেকোন একটি বিষয়ে পারদর্শী হলে আপনি কন্টিনিউ কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন।

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করে কত টাকা আয় করতে পারবো?

এটা আসলে নির্ভর করছে কাজের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার উপর। কাজের ধরণভেদে স্যালারি কমবেশি হয়ে থাকে। তবে বিগিনার হিসেবে আপনি ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে প্রতি ঘন্টায় সর্বনিম্ন ৫ ডলার করে পেতে পারেন। 

গ্লাসডোর এর তথ্য মোতাবেক আমেরিকান মার্কেটে একজন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট গড়ে প্রতিবছর প্রায় ৪৫,০০০ ডলার আর্ন করে থাকেন।

Leave a Reply